1. info@bangladeshnewstime.net : bangladeshnewstime.net :
   
শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
বাঁ পা অপারেশন করতে গিয়ে অপারেশন করলেন ডান পায়ের। মেহেরপুরের গাংনীতে সরকারী সম্পত্তি থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংকের চৌমুহনী শাখার শুভ উদ্বোধন পার্বত্য চট্রগ্রাম চুক্তির ২৪ বছর পূর্তি উপলক্ষে রাঙামাটিতে আলোচনা সভা যশোরের বেনাপোলে চলো আইটি গ্রুপের যাত্রা শুরু স্পীড বোট দিয়ে ঘেরাও করে নাফ নদে ইয়াবাসহ ৩ জনকে আটক করলো বিজিবি বাংলাদেশি পাসপোর্ট যাত্রীদের স্পট করোনা পরীক্ষা করায় দূর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা। কোম্পানীগঞ্জে চোরাই মোটরসাইকেলসহ গ্রেফতার ২ মেহেরপুরে প্রেম করে বিয়ে, সপ্তাহ না যেতেই প্রেমিকের আত্মহত্যা চাকরি দেওয়ার নামে হাতিয়ে নিয়েছে পাঁচ লক্ষ টাকা!
শিরোনাম
বাঁ পা অপারেশন করতে গিয়ে অপারেশন করলেন ডান পায়ের। মেহেরপুরের গাংনীতে সরকারী সম্পত্তি থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংকের চৌমুহনী শাখার শুভ উদ্বোধন পার্বত্য চট্রগ্রাম চুক্তির ২৪ বছর পূর্তি উপলক্ষে রাঙামাটিতে আলোচনা সভা যশোরের বেনাপোলে চলো আইটি গ্রুপের যাত্রা শুরু স্পীড বোট দিয়ে ঘেরাও করে নাফ নদে ইয়াবাসহ ৩ জনকে আটক করলো বিজিবি বাংলাদেশি পাসপোর্ট যাত্রীদের স্পট করোনা পরীক্ষা করায় দূর্ভোগে পড়েছেন যাত্রীরা। কোম্পানীগঞ্জে চোরাই মোটরসাইকেলসহ গ্রেফতার ২ মেহেরপুরে প্রেম করে বিয়ে, সপ্তাহ না যেতেই প্রেমিকের আত্মহত্যা চাকরি দেওয়ার নামে হাতিয়ে নিয়েছে পাঁচ লক্ষ টাকা!

ঝগড়া করার পর কি করা উচিত?

  • আপডেট: সোমবার, ২২ নভেম্বর, ২০২১
  • ২০ বার পড়া হয়েছে
AM8E51 Couple Model released Shoot No 3060 AJ Emily

আপনার সঙ্গীর সাথে কেন ঝগড়া হয়? কারণ আপনার যুক্তি আপনার সঙ্গী মেনে নেয়নি?তাই আপনার চাই পরিবার, বন্ধু কিংবা অন্য কোনো পরিচিত ব্যক্তির কাছ থেকে আপনার যুক্তির স্বীকৃতি। এজন্য ঘরের কলহের গল্প তাকে জানাতে হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই নিয়ে স্ট্যাটাস দিয়ে দিলেন। কিংবা বাইরের কারও সঙ্গে আলাপ করলেন- এখানেই বাঁধল বিপত্তি। সঙ্গীর সঙ্গে ঝগড়ার পর সেই কারণটা উপেক্ষা করা কিংবা কিছুই হয়নি এরকম ভান করা কোনো সমাধান বয়ে আনে না।যুক্তরাষ্ট্রের ‘ম্যারেজ কনসালটেন্ট’ লেসলি এম. ডাব্লিউ. দোয়ারেস বলেন, “কলহের পর বিষয়টি ধামাচাপা দিলে সঙ্গীর ধারণা হবে ঝগড়ার ফলাফল আপনি মেনে নিয়েছেন। তবে মেনে নেন আর না নেন, তা ঠাণ্ডা মাথায় আলোচনার মাধ্যমেই সেই ফলাফল ভবিষ্যতে সুফল বয়ে আনবে। আর কলহের মধ্য থেকে আপনারা কী শিক্ষা পেলেন তা নিয়ে আলোচনার মাধ্যমে পূরণ নিতে পারবেন কলহের কারণে সম্পর্কের ক্ষতিটুকু।

”সংসারে কলহের কারণটা সমাধান না হলে সাময়িক মীমাংসা কোনো সুফল বয়ে আনবে না। বরং তা সময়ের সঙ্গে আরও গভীর হয়ে পুনরায় কলহের জন্ম দেবে। আবার ঝগড়া শুরু করার আগেও ভেবে নিতে হবে ঝগড়ার বিষয়বস্তুটা কি আদৌ তর্ক যোগ্য।সম্পর্কবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনের আলোকে তুলে ধরা হল দাম্পত্য কলহ নিয়ে এমনই কিছু বিষয়। ফ্লোরিডার মনোবিজ্ঞানী মারনি ফিউয়ারম্যান বলেন, “স্বামী-স্ত্রী মধ্যকার বিশ্বাসকে অনেকটাই নড়বড়ে করে দিতে পারে এই সামান্য কাজ। আর একবার ঘরের খবর বাইরে বেরোলে তা থামানোর উপায়। মানুষ আপনাদের সম্পর্ক নিয়ে কথা বলবে, দোষগুণ বিচার করবে। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যকার যে সম্পর্ক তা তো বাইরের মানুষের সঙ্গে নেই, বাইরের মানুষের কাছে আছে শুধু আপনার দেওয়া ঘটনার বর্ণনা। ফলে তারা ভুলত্রুটিগুলোকে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখতে পারেনা। তাই আলাপ যদি করতেই হয় তবে এমন একজন ব্যক্তির সঙ্গে করা উচিত যার প্রতি দুজনারই আস্থা আছে এবং যে নিরপেক্ষভাবে পরামর্শ দিতে পারবে। আরেক মনোবিজ্ঞানী ও সম্পর্ক বিশেষজ্ঞ অ্যানটোনিয়ো হল বলেন, “রাগ ও মানসিক আঘাতের কারণ সমাধান করা না হলে তা ক্রমেই ভেতরে বড় হতে থাকে। ফলে ঝগড়ার পর মীমাংসায় আসতে যত বেশি সময় নেওয়া হবে, মীমাংসা ততই কঠিন হতে থাকবে। আর এই সময় দুজনেই কষ্ট পাবেন। আরও বেশি সময় পার করে দিলে এসময় ঝগড়ার খুঁটিনাটি বিষয়গুলো ভুলে যেতে থাকবেন, যা মীমাংসা আসাকে আরও কঠিন করে তুলবে। তাই ঝগড়ার পর কিছুটা সময় ঠাণ্ডা মাথায় ব্যাপারটি ভেবে পরক্ষণেই সমস্যা নিয়ে শান্ত আলোচনার মাধ্যমে সমাধানে আসা উচিত।”ঝগড়ার পর কিছুটা একা সময় কাটানো অত্যন্ত জরুরি। তবে লম্বা সময় কথা না বলা, তাকে এড়িয়ে চলা, উপেক্ষা করা পরিস্থিতিকে আরও ঘোলাটে করবে। কারণ এই কাজগুলো মানুষটার ওপর মানসিক অত্যাচার করা। রাগ করে থাকা মানেই যে কথা বলা বন্ধ করতে হবে এমন নয়। বরং তাকে বুঝিয়ে বলতে পারেন আপনার কিছুটা সময় দরকার মাথা ঠাণ্ডা করার জন্য এবং তারপর আলোচনার মাধ্যমে মীমাংসা করতে হবে। ঝগড়া সময় স্বভাবতই দুপক্ষের মেজাজ থাকে তুঙ্গে। এই মেজাজ নিয়ে একে-অপরের দোষ নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি করলে কলহের ইতি টানা সম্ভব হবে না।

ঝগড়ার হার-জিত নিয়ে সম্পর্ক নয়, আপনারা দুজনেই একই দলে। তাই তাকে ক্ষমা করে নেতিবাচক বিষয়গুলোর ঊর্ধ্বে গিয়ে সুখী হতে পারাটাই সম্পর্কের মূলমন্ত্র। সঙ্গীর ভুলত্রুটি বিবেচনার পাশাপাশি নিজের ভুলত্রুটিও বিবেচনায় আনতে হবে।

পুরুষ যদি প্রকৃত অর্থেই ক্ষমা চায় তবে স্ত্রীদের উচিত হবে রাগ ধরে না রেখে ক্ষমা করা। স্বামী-স্ত্রী যদি তাদের ঝগড়ার সময় পুরানো ঝগড়া আবার তুলে আনেন তবে ঝগড়া শেষ হবে না কোনও দিন! মতের অমিল হওয়া মানেই যে অন্যজন ভুল করছে- এমন নাও হতে পারে। সবারই ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ থাকে যা দুজনের ভিন্ন হলেও হয়ত কোনোটাই ভুল নয়। সেক্ষেত্রে মতের অমিলকে মেনে নিয়ে পরস্পরের ব্যক্তিগত পছন্দকে সম্মান করাই উচিত হবে। তবে আপনার মতের সঙ্গে মেলেনি বলে সঙ্গীকে অপমান করা, মনের আঘাত দিয়ে কথা বলা, দুর্ব্যবহার করা মোটেও উচিত কাজ হবে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। (যেকোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।)